Tuesday , 17 July 2018
Breaking News
Home » সুপারভিলেন অরিজিন » সুপারভিলেন অরিজিন : Catwoman

সুপারভিলেন অরিজিন : Catwoman

আজ কথা বলবো ডিসির ভয়ংকর ভিলেন ক্যাটওম্যানকে নিয়ে

‘আমার সবকিছুই বড্ড ধূসর প্রকৃতির। তাই তুমি আমাকে কখনও বুঝতে পারোনি।’
-ক্যাটওম্যান

1

★প্রকাশনা-

১৯৮৬ সালের ডিসেম্বর মাসে প্রকাশিত ‘ডিটেকটিভ কমিক্স #৫৬৯’ কমিকে অভিষেক হয় ডিসি ইউনিভার্সের অন্যতম আইকনিক নারী চরিত্র সেলিনা কাইল ওরফে ক্যাটওম্যানের। জনপ্রিয় এই চরিত্রের স্রষ্টা ছিলেন বিখ্যাত কমিকবুক জুটি বিল ফিঙ্গার এবং বব কেইন।

Supervillains Origin : Catwoman

★অরজিন-

সেলিনার শৈশব ছিলো খুবই বিষাদপূর্ণ। তার শৈশব থাকতেই তার অত্যাচারী মা আত্মহত্যা করে। আবার কিছুদিন না যেতেই না মদ্যপ পিতাও অতিরিক্ত পান করার ফলে মৃত্যুবরণ করে। সেলিনাকে তার ছোটবোন থেকে আলাদা করে পাঠানো হয় স্প্র‍্যাং হল জুভেনাইল ডিটেনশন সেন্টারে, যেখানে এতীম মেয়েশিশুদের প্রচুর অত্যাচার করা হতো। এসব সহ্য করতে না পেরে সে সেখান থেকে পালিয়ে আসে গোথামের বাইরে একটা কার্নিভালে। সেখানে পকেটমারীর চেষ্টা করে, কিন্তু ধরা পড়ে যায় কার্নিভালের মালিকের হাতে। লোকটা তাকে কার্নিভালে কাজ করার প্রস্তাব দিলে সে রাজী হয় এবং সেখানে কাজের সূত্রে বিভিন্ন ধরনের টেকনিক যেমন জিমন্যাস্টিক্স, ম্যাজিক ট্রিকস, কন্টোর্শোনিজম ইত্যাদি। এদিকে সে চুরিবিদ্যাও বেশ ভালোভাবেই রপ্ত করে। একসময় কার্নিভালের মালিক মারা গেলে সে সেটা ছেড়ে চলে আসে গোথামে।

গোথামের পূর্বপ্রান্তে এসে সে একজন পতিতা হিসেবে সেখানে বসবাস করা শুরু করে। সেখানে সে স্ট্যান নামে একজন দলালের অধীনে কাজ করতো, যে তার উপর নজর রাখার জন্য হলি রবিনসন নামে একটা বালিকাকে নিয়োগ করে। ব্যাটম্যানকে প্রথমবার দেখার পর তার ক্যাটওম্যান হওয়ার ইচ্ছা হয়। এতে সে স্ট্যানকে মারধর করে হলিকে সাথে নিয়ে চলে আসে। বিড়ালের আদলে কস্টিউম পরে সে গোথামে নিজের পরিচয় জানান দিতে থাকে। সে তার ভিক্তিমদের মুখে নখ দিয়ে প্রচুর পরিমাণে খামচে আসতো। এদিকে স্ট্যান প্রতিশোধ নেয়ার জন্য তার ছোটবোন ম্যাগিকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। সেলিনা তার বোনকে উদ্ধার করে আনে, রেখে আসে স্ট্যানের লাশ! এঘটনার পরে ব্যাটম্যান সেলিনাকে ধরতে আসলে সেলিনা ব্যাটম্যানকে একটি চুমু খাওয়ার ফাকে বাহুতে ছুরি দিয়ে জখম করে পালিয়ে আসে। সেসময় টাইম স্ট্রিমে একটা ডিস্টোর্শন ঘটার ফলে সেলিনার জীবন থেকে তার পতিতাবৃত্তি হারিয়ে যায় এবং সে এই পুরোটা সময় একজন পকেটমার হিসেবে পরিচিত থাকে।

এসব ঘটে যাওয়ার পর সে পরিপূর্ণরূপে ক্যাটওম্যান হিসেবে নিজের আত্মপ্রকাশ ঘটায়। সে কখনও পুরোপুরিভাবে ভালো বা খারাপের পথে যায়নি। তার নিজের একটি মোরাল কোড রয়েছে। সে প্রায়সময় ব্যাটম্যান এবং অন্যান্য ভিজিল্যান্টির সাথে দলবদ্ধ হয়ে গোথামের অলিগলিতে ফাইট করতে থাকে। এমনকি সে একবার পুরো জাস্টিস লীগকেও মৃত্যুর হাত থেকে বাঁচিয়েছিলো। ব্যাটম্যানের সাদাকালো জীবনে সে ধূসরা হয়ে আসে। সেলিনার নিজস্ব মোরাল কোড তার প্রতি ব্রুসের ভালোলাগার অন্যতম কারণ। এজন্য ক্যাওম্যানকে বলা হয় ব্যাটম্যানের প্রকৃত নারী প্রতিরূপ, আরেকটি আঁধার সৃষ্টি যে কিনা রাতের বেলা ঘুরে বেড়ায় শহরের অলিগলি।

1

★যোগ্যতা-

*অ্যাক্রোব্যাটিক্স- সেলিনা অত্যন্ত দক্ষ একজন অ্যাথলেট, সাথে আছে তার অসামান্য অ্যাক্রোব্যাটিক মুভমেন্ট। তার এক্ষেত্রে শৈল্পিকতা এতোই বেশি যে এক্ষেত্রে তাকে একজন সুপারহিউম্যান মনে করা হয়।

*ফাইটিং- স্ট্রিট ফাইটিঙে নিজের অবস্থান টিকিয়ে রাখার জন্য সে ওয়াইল্ড ক্যাটের কাছে বক্সিং এবং আর্মলেস মাস্টারের কাছে বিভিন্নরকম মার্শাল আর্ট রপ্ত করে। তার মতো বিপদজনক, চালাক এবং বুদ্ধিমান মার্শাল আর্টিস্ট গোথাম শহরে একমাত্র ব্যাটফ্যামিলি বাদে অন্যকোথাও পাওয়া প্রায় অসম্ভব ব্যাপার। তার আয়ত্ত করা মার্শাল আর্টগুলো হলো-

-বক্সিং
-ক্যাপেইরা
-হাপকিডো
-জুজুৎসু
-ড্রাগন স্টাইল কুংফু
-কারাতে

*চুরিবিদ্যা- সেলিনা একজন মাস্টার লেভেলের চুন্নি। তার বিড়াল থিম নিয়ে চুরির কাহিনী পুরো গোথামে সমাদৃত। সে ব্যাংক ডাকাতি করতে চাইলে হামলা আক্রমণের ভেজালে যাবেনা, সিম্পলি ব্যাংকের ম্যানেজারের কাছে যেয়ে তার পার্সোনাল ডকুমেন্ট সংগ্রহ হরে কাজ শুরু করবে।

*ছদ্মবেশ- একজন মাস্টার লেভেল চোট্টা হওয়ায় ছদ্মবেশ ধারণ করতে সেলিনার জুড়ি নেই। খুব সহজেই সে যেকোন বয়সের কিংবা যেকোন মানুষের ছদ্মবেশ ধারণ করতে পারে।

*দৈহিক শক্তি- সেলিনা তার বয়সের একজন পিক হিউম্যানের ন্যায় শক্তিশালী নারী। সে কোনরূপ খাটুনী ছাড়াই তার দেহের ভরের দ্বিগুণ তুলে ফেলতে পারে।

★যন্ত্রপাতি-

*ক্যাটওম্যান কস্টিউম- বিড়ালের আদলে তৈরী তার কস্টিউমে গ্লাভসে রয়েছে রেজরের মতো ধারালো ব্লেড এবং বুটে আছে দেয়াল বেয়ে ওঠার জন্য পিটন। তার কস্টিউমের গঠন তাকে সর্বাধিক লেভেলের ফ্লেক্সিবিলিটি এবং স্টেলথ যা তার জন্য দরকারি। তার কস্টিউমে ব্যবহৃত কাপড় তার দেহের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণে সহায়ক।

*মোটরসাইকেল- দূরে কোথাও যাওয়ার জন্য সেলিনার রয়েছে একটি মোটরসাইকেল। অবশ্য সাধারণত সে ভবনের ছাদ দিয়েই বেশি চলাফেরা করে।

★একজনজর-

নাম- সেলিনা কাইল
পরিচিতি- ক্যাটওম্যান
আত্মীয়- ব্রায়ান কাইল (মৃত পিতা)
মারিয়া কাইল (মৃত মা)
ম্যাগি কাইল (ছোটবোন)
হেলেন কাইল (কন্যা)
সংযুক্তি- দ্য ব্যাট ফ্যামিলি
আউটসাইডার্স
দ্য বার্ডস অভ প্রে
ফিমেল ফিউরিস
ইনজাস্টিস লীগ
দ্য সোসাইটি
গোথাম সিটি সাইরেন
অপারেশন বেজ- পূর্ব গোথাম

পরিচয়- গোপন
জন্মস্থান- গোথাম সিটি
নাগরিকত্ব- আমেরিকান
বৈবাহিক অবস্থা- সিঙ্গেল
পেশা- চুরি

লিংগ- নারী
উচ্চতা- ৫ ফুট ৭ ইঞ্চি
ওজন- ১৩৩ লাউন্ড (৬০ কেজি)
চোখ- সবুজ
চুল- কালো

★ট্রিভিয়া-

*দ্য টিন রুফ ক্লাব নামে সেলিনার মালিকানাধীন একটি নাইট ক্লাব আছে।

*ক্যাটওম্যান হওয়ার পর সেলিনার প্রথম শিকার ছিলো গোথামের মাফিয়া ডন কারমাইন ফ্যালকোন।

*হেলেনা কাইলের জন্মের পর সেলিনার ক্যাটওম্যান ম্যান্টল তুলে নিয়েছিলো হলি রবিনসন। কিন্তু ফিল্ম ফ্রিক হেলেনাকে অপহরণ করলে সে আবারও পূর্ণ দাপটে ফিরে আসে।

*ধারণা করা হয় সেলিনার প্রকৃত পিতামাতা হচ্ছে কারমাইন এবং লুইসা ফ্যালকোন। যদিও এটা কখনও প্রমাণিত করা হয়নি। তবে সেলিনার কাছে নাকি এব্যাপারে যথেষ্ট প্রমাণ আছে।

*এপর্যন্ত ক্যাটম্যানকে যেসব লাইভ একশন মোশন পিকচারে দেখা গিয়েছে-

জুলি নিউমার- ব্যাটম্যান (সিরিজ ১৯৬৬-৬৭)
আর্থা কিট- ব্যাটম্যান (সিরিজ ১৯৬৭-৬৮)
লী মেরিওয়েদার- ব্যাটম্যান (সিনেমা ১৯৬৬)
মিশেল ফাইফার- ব্যাটম্যান রিটার্ন্স (সিনেমা ১৯৯২)
হ্যালি বেরি- ক্যাটওম্যান (সিনেমা ২০০৪)
অ্যানা হাথওয়ে- দ্য ডার্ক নাইট রাইজেস (সিনেমা ২০১২)

– ধন্যবাদ।

সুপারভিলেন অরিজিন লিখেছেনঃ ‎Ahmed Munna

আজ কথা বলবো ডিসির ভয়ংকর ভিলেন ক্যাটওম্যানকে নিয়ে 'আমার সবকিছুই বড্ড ধূসর প্রকৃতির। তাই তুমি আমাকে কখনও বুঝতে পারোনি।' -ক্যাটওম্যান ★প্রকাশনা- ১৯৮৬ সালের ডিসেম্বর মাসে প্রকাশিত 'ডিটেকটিভ কমিক্স #৫৬৯' কমিকে অভিষেক হয় ডিসি ইউনিভার্সের অন্যতম আইকনিক নারী চরিত্র সেলিনা কাইল ওরফে ক্যাটওম্যানের। জনপ্রিয় এই চরিত্রের স্রষ্টা ছিলেন বিখ্যাত কমিকবুক জুটি বিল ফিঙ্গার এবং বব কেইন। Supervillains Origin : Catwoman ★অরজিন- সেলিনার শৈশব ছিলো খুবই বিষাদপূর্ণ। তার শৈশব থাকতেই তার অত্যাচারী মা আত্মহত্যা করে। আবার কিছুদিন না যেতেই না মদ্যপ পিতাও অতিরিক্ত পান করার ফলে মৃত্যুবরণ করে। সেলিনাকে তার ছোটবোন থেকে আলাদা করে পাঠানো হয় স্প্র‍্যাং হল জুভেনাইল ডিটেনশন সেন্টারে, যেখানে…

Review Overview

User Rating: Be the first one !
0
Do you like this post?
  • Fascinated
  • Happy
  • Sad
  • Angry
  • Bored
  • Afraid

About Admin