সুপারহিরো অরিজিন : Cyclops – সর্বাধিক জনপ্রিয় মিউট্যান্ট দল এক্সমেনের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য সাইক্লপ্স

1

Superhero Origin : Cyclops

“তুমি কখনও একটা আইডিয়াকে খুন করতে পারবেনা। এটা বারবার পুনর্জন্ম নেবেই।”

★প্রকাশনা-

মার্ভেল ইউনিভার্সের সর্বাধিক জনপ্রিয় মিউট্যান্ট দল এক্সমেনের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য সাইক্লপ্স তথা স্কট সামার্সের স্রষ্টা কিংবদন্তী কমিক্স কাপল স্ট্যান লি এবং জ্যাক কিরবী। ১৯৬৩ সালের সেপ্টেম্বরে প্রকাশিত ‘এক্সমেন #১’ কমিকে তার অভিষেক ঘটে।
a
★অরিজিন-

মার্কিন এয়ারফোর্সের টেস্ট পাইলট মেজর ক্রিস্টোফার সামার্স এবং তার স্ত্রী ক্যাথেরিন অ্যান সামার্সের প্রথম সন্তান স্কট সামার্স। তার ছোটভাই অ্যালেক্স সামার্স হচ্ছে আরেক মিউট্যান্ট যাকে আমরা হ্যাভক নামে চিনি। একবার এক পারিবারিক ছুটিতে তারা সবাই বিমানে করে ঘুরতে বের হয়। এসময় আচমকা ভিনগ্রহী এলিয়েন পরিবার শি’আরের স্কাউট শিপ তাদের আক্রমণ করে বসে। ক্যাথেরিন দুইভাইকে বিমানে থাকা মাত্র দুইটি প্যারাসুট কাঁধে করে দিয়ে তাদের বিমান থেকে ফেলে দেয়। কিন্তু তাদের বিমান বিস্ফোরণের ব্লাস্টওয়েভে তাদের প্যারাসুটে আগুন ধরে যায়। তখন স্কট প্রথমবারের মতো তার অপটিকাল ব্লাস্ট ব্যবহার করে তাদের পতন ঠেকায়। এদিকে বিমান বিস্ফোরিত হওয়ার ঠিক আগমুহূর্তে শি’য়ার টেকনোলজি দিয়ে ভিনগ্রহীরা তাদের পিতামাতাকে টেলিপোর্ট করে নিয়ে যায় যেটি দুইভাই আর জানতে পারেনা।

মাটিতে নামার পরে স্কট তার মাথায় বড়ধরনের আঘাত পায় যেটি তার মস্তিষ্কের অপটিকাল ব্লাস্ট ঘটানোর জন্য দায়ী অংশে ক্রিয়া করে। দুইভাইকে সাহপাতালে ভর্তি করা হয়। সেসময় তারা দূর্ঘটনার ফলে সৃষ্ট ট্রম্যাটিক অ্যামেনশিয়ায় ভুগতে থাকে। সেখানে একজন জেনেটিক বিশেষজ্ঞ তাদের উপর আগ্রহী হয়। সে বুঝতে পারে স্কট ভ্রাতৃদ্বয়ের মধ্যে বেশি ক্ষমতাসম্পন্ন মিউট্যান্ট। তার সে অ্যালেক্সকে তার থেকে আলাদা করে দেয় ফলে সে মানসিকভাবে খুব দুর্বল হয়ে পড়ে। একরাতে স্কট আচমকা ঘুম থেকে উঠে তার অপটিকাল ব্লাস্ট দিয়ে হাসপাতালের ছাদ ধসিয়ে দেয়। এরপর প্রায় একবছর পর সে ঘুম থেকে ওঠে। এরপর সে সুস্থ হয়ে ওঠলে তাকে নেব্রাস্কার ওমাহা শহরে অবস্থিত স্টেট হোম ফর ফাউন্ডলিং নামের এক এতিমখানায় স্থানান্তর করা হয়। সেখানে মিলবিউরি নামে সেই জেনেটিক বিশেষজ্ঞ তার উপর বেশকিছু গবেষণা ও পরীক্ষা চালায়। তাকে কেউ দত্তক নিতে চাইলে মিলবিউরি সেটা হতে দিতেন না।

এসময় তার মাঝেমধ্যে প্রচণ্ড মাথাব্যথা হতো। এটির সমাধান করতে তাকে একজন বিশেষজ্ঞের কাছে পাঠানো হয় যে তাকে রুবি-কোয়ার্টজ সংকরের চশমা পরিধান করার থাকার পরামর্শ দেন। কিছুদিন পরই তার চোখের অপটিকাল ব্লাস্ট নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায়। তার এই অসীম ক্ষনতার ফলে একটি ক্রেন ধ্বসে পড়তে নেয়, কিন্তু স্কট সেটিকে কোনক্রমে ধরে আশেপাশের মানুষকে বাচায়। কিন্তু তারা তাকে খারাপ ভেবে তাকে হত্যা করতে উদ্যত হলে সে সেখান থেকে পালিয়ে আসে। পালিয়ে সে আসে জ্যাক ও’ডায়মন্ড নামের এক খারাপ মিউট্যান্টের হাতে পড়ে। সে তাকে তার অপরাধে ব্যবহার করতে চায়, স্কট রাজী না হলে তাকে অত্যাচার করে। এদিকে প্রফেসর এক্স তার টেলিপ্যাথিতে স্কটের অস্তিত্বের জানান পায় এবং ফ্রেড ডানকান নামে একজন এফবিআই এজেন্টকে সাথে নিয়ে তাকে খুঁজতে বের হয়। এরপর স্কট প্রফেসরের সাহায্যে উদ্ধার হয় এবং সর্বপ্রথম সদস্য হিসেবে এক্সমেনে যোগদান করে।

★ক্ষমতা ও যোগ্যতা-

*ক্ষমতামাপক-

বুদ্ধি- ৩/৫
শক্তি- ২/৫
দ্রুতি- ২/৫
টিকে থাকা- ২/৫
শক্তি সঞ্চয়- ৫/৫
আক্রমণ- ৪/৫

*ক্ষমতা-

অপটিকাল ব্লাস্ট- স্কটের প্রধান মিউট্যান্ট ক্ষমতা হলো তার চোখ থেকে নির্গত হওয়া অসীম পরিমাণে অপটিকাল বিস্ফোরণ। তার দেহে ক্রমাগত হতে থাকা ফোটন বিক্রিয়ার সাহায্যে তার চোখে এই ক্ষমতা আগত হয়।

তার চোখ সাধারণ মানুষের মতো শুধু দেখার কাজে ব্যবহৃত হয়না। মার্ভেলের হ্যান্ডবুক অনুসারে, তার চোখে বিভিন্ন ডাইমেনশন থেকে আসা রশ্মি তার চোখে ফোটন বিক্রিয়া ঘটায় যার বিস্ফোরিত ফলাফল তার চোখ দিয়ে ক্রমাগত বের হতে থাকে। এছাড়াও তার দেহেও বিভিন্ন ধরণের কসমিক বিক্রিয়া ঘটে যেগুলোর জন্য এই ডাইমেনশনাল রশ্মিপাত দায়ী। তার চোখ থেকে বের হওয়া বিস্ফোরণের সবচেয়ে কাছের বীমগুলোর প্রতি বর্গইঞ্চিতে দুইপাউন্ড আর ৫০ ফীটের মধ্যে সেটি বেড়ে দাঁড়ায় ১০ পাউন্ড প্রতি বর্গইঞ্চিতে। ৩৫ মিলিমিটার দৈর্ঘ্যের ক্যামের লেন্স থেকে রশ্মি নির্গত হওয়ার ব্যবস্থার অনুরূপ স্কটের অপটিকাল ব্লাস্ট নির্গত হওয়ার ব্যবস্থা। তার ক্ষমতা উচ্চমাত্রায় গেলে প্রতি বর্গইঞ্চিতে ৫০ পাউন্ড ভরের শক্তি বিদ্যমান থাকে।

তার ক্ষমতা অসীম। কোনরূপ বিরতি ছাড়াই সে যতক্ষণ ইচ্ছা এই অপটিকাল ব্লাস্ট নির্গত করতে পারে। তবে একটানা ১৫ মিনিট নির্গত হলে ব্লাস্ট কিছুটা ধীর হয়ে যায়, যার জন্য দায়ী তার দেহে থাকা সাইওনিক ফিল্ড। তার দেহের মেটাবলিজম থেকে এই ক্ষেত্র সৃষ্টি হয়। এপর্যন্ত তার ক্ষমতার মাত্রা নির্ণয় করা সম্ভব হয়নি। তবে ধারণা করা হয় উচ্চমাত্রায় সে মাউন্ট এভারেস্টে ছিদ্র করতে সক্ষম। এছাড়াও সে দেড়ইঞ্চি পুরু লোহার প্লেটকে ভেদ করতে সক্ষম হয়েছে। স্কটের নিজস্ব কথানুযায়ী সে জাগারনাটকে যে মাত্রার ব্লাস্ট দিয়ে হিট করেছিলো তা একটা গ্রহকে দুটুকরো করতে যথেষ্ট। এমনকি এজ অভ অ্যাপোক্যালিপ্স ডাইমেনশনে সে অ্যাডমেন্টিয়াম প্লেটকে ভেদ করে দেখিয়েছে। আয়রনম্যান একবার হিসাব করে দেখে যে সে দুই গিগাওয়াট বিদ্যুতের সমান ব্লাস্ট ঘটাতে সক্ষম।

*যোগ্যতা-

-দক্ষ বিমানচালক
-অভিজ্ঞ যুদ্ধবীদ
-মার্শাল আর্টিস্ট

★দুর্বলতা-

তরুণবয়সে বিভিন্নরকম মানসিক সমস্যার কারণে স্কটের মিউট্যান্ট ক্ষমতা এতোটাই অনিয়ন্ত্রিত পর্যায়ে চলে গিয়েছে যা রুবি-কোয়ার্টজ সংকর থেকে তৈরী কাচ ব্যতীত থামানো সম্ভব নয়। এটা তার মিউট্যান্ট ক্ষমতার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া যা তার প্রধান দুর্বলতা

★যন্ত্রপাতি-

ভাইজর- অপটিকাল ব্লাস্ট আটকে রাখতে স্কটকে সবসময় রুবি-কোয়ার্টজ সংকরের একটা ভাইজর পরিধান করে থাকতে হয়। প্রফেসর এক্স এটি তাকে বানিয়ে দিয়েছেন। এছাড়াও এই ভাইজর দিয়ে সে নিজের ব্লাস্ট রেডিয়াস নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। এটি হাই ইমপ্যাক্ট প্লাস্টিক দিয়ে বানানো যার ফলে অপটিকাল ব্লাস্টের দরুন এর কিছুই হয়না।

এক্সস্যুট- স্কটের স্যুটও বানিয়ে দিয়েছেন প্রফেসর এক্স। এটার ডিজাইন তাকে বিভিন্নরকম আক্রমণ থেকে বাঁচিয়ে রাখতে এবং একটা হিরোওয়ালা ভাব দেখানোর জন্য তৈরী। এটা সম্পূর্ণভাবে বুলেট, আগুন আর বোমা নিরোধক করে বানানো হয়েছে।

এছাড়াও রাতে ঘুমাবার সময় ব্যবহারের জন্য রয়েছে রুবি-কোয়ার্টজ সংকরের অপটিকাল লেন্স।

★একনজর-

নাম- স্কট সামার্স
পরিচিতি- সাইক্লপ্স
আত্মীয়- ক্রিস্টোফার সামার্স (পিতা)
ক্যাথেরিন সামার্স (মাতা)
অ্যালেকজান্ডার সামার্স (ভাই)
গ্যাব্রিয়েল সামার্স (ভাই)
জ্যাক উইন্টার্স (পালক পিতা)
ম্যাডেলিন প্রায়র-সামার্স (প্রথমা স্ত্রী)
জীন গ্রে-সামার্স (দ্বিতীয়া স্ত্রী)
নাথান সামার্স (পুত্র)
জন গ্রে (মৃত শ্বশুর)
এলাইন গ্রে (মৃত শাশুড়ি)
সারা গ্রে-বেইলী (মৃত শ্যালিকা)
ক্যালসি নিরামাইনি (শ্যালিকা)
রজার গ্রে (মৃত শ্যালক)
পল গ্রে (মৃত শ্যালক)
লিয়াম গ্রে (মৃত শ্যালক)
আলিয়া ডেইস্প্রিং (মৃত পুত্রবধূ)
টাইলার ডেইস্প্রিং (মৃত সতনাতী)
হোপ সামার্স (পালক কন্যা)
ন্যাট গ্রে (অল্টারনেট রিয়ালিটির পুত্র)
র‍্যাচেল সামার্স (মৃত অল্টারনেট রিয়ালিটি কন্যা)
সংযুক্তি- এক্সমেন
নেশন এক্স
ফিনিক্স ফাইভ
এক্সফোর্স
করসাইর স্কোয়াড
টুয়েলভ
ক্ল্যান রেবেলিওন
এক্সফ্যাক্টর
হাউন্ডস
এক্সকর্পোরেশন
বেজ- জীন গ্রে স্কুল ফর হায়ার লার্নিং
চার্লস জেভিয়ার স্কুল ফর মিউট্যান্ট
গ্রেম্যালকিন ইন্ডাস্ট্রিজ, মার্টিন হেডল্যান্ডস, স্যান ফ্রান্সিসকো
এক্স ফ্যাক্টর কমপ্লেক্স, ম্যানহাটন, নিউইয়র্ক

পরিচয়- পাবলিক
নাগরিকত্ব- আমেরিকান
বৈবাহিক অবস্থা- দুইবার বিপত্নীক
শিক্ষা- গ্র‍্যাজুয়েশন
পেশা- শিক্ষক

লিংগ- পুরুষ
উচ্চতা- ৬ ফুট ৩ ইঞ্চি
ওজন- ১৯৫ পাউন্ড (৮৮ কেজি)
চোখ- বাদামী/লাল
চুল- বাদামী

কমিকে প্রথম আগমন- সেপ্টেম্বর ১৯৬৩
কমিকে শেষ আগমন- জানুয়ারি ২০১৭

★ট্রিভিয়া-

*এমা ফ্রস্ট প্রথম বুঝতে পারে যে স্কটের ক্ষমতার মাত্রা অনিয়ন্ত্রিত পর্যায়ে চলে যাওয়ার জন্য দায়ী তার পিতামাতার অকাল প্রস্থান এবং নিজের ভাইয়ের থেকে আলদা হয়ে যাওয়া।

*স্কট রেডিও শুনতে ভালোবাসে, এমনকি সে কিছুদিন একটা রেডিওতে আরজে হিসেবে কাজ করেছিলো।

*স্ত্রী জীন গ্রের মা এলাইন গ্রে এর সাথেও স্কটের অন্তরঙ্গতা ছিলো যে কিনা তার প্রতি মাতৃসুলভ আচরণ করতো। জীনের মৃত্যুর পরে তারা আরও ক্লোজ হয় কিন্তু দুর্ভাগ্যক্রমে এলাইন মারা পড়ে ব্ল্যাক ক্লোকের হাতে।

*স্কট ও তার ভাই সবার একটা করে সিগনেচার কালার আছে। স্কটের ক্ষেত্রে এটা হলো লাল।

*২০০৬ সালে আইজিএন অনুসারে সাইক্লপ্স সেরা ২৫ এক্সমেনের মধ্যে প্রথম স্থান অধিকার করেছিলো। এছাড়াও সিবিআর অনুসারে ২০১১ সালে সেরা ১০০ মার্ভেল হিরোদের মধ্যে তার অবস্থান ছিলো নবম।

*এপর্যন্ত সাতটি সিনেমায় সাইক্লপ্সকে দেখা গিয়েছে। তিনজন এই চরিত্রে অভিনয় করেছেন। এক্সমেন, এক্স টু এক্সমেন: দ্য লাস্ট স্ট্যান্ড আর এক্সমেন: ডেইজ অভ ফিউচার পাস্ট সিনেমায় জেমস মার্সডেন; এক্সমেন অরিজিনস: উলভারিন সিনেমায় টিম পকক এবং এক্সমেন: অ্যাপোক্যালিপ্স সিনেমায় টাই শ্রেইডান এই চরিত্রে অভিনয় করেছেন।

*সিনেমায় আলেক্সান্ডারকে স্কটের বড় দেখানো হলেও কমিক্সে স্কটই সামার্স ফ্যামিলি অপূর্ব মানে বড় ছেলে।

– ধন্যবাদ।

[review]

TankiBazzসুপারহিরো অরিজিনCyclops,সুপারহিরো অরিজিন
সুপারহিরো অরিজিন : Cyclops - সর্বাধিক জনপ্রিয় মিউট্যান্ট দল এক্সমেনের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য সাইক্লপ্স Superhero Origin : Cyclops 'তুমি কখনও একটা আইডিয়াকে খুন করতে পারবেনা। এটা বারবার পুনর্জন্ম নেবেই।' ★প্রকাশনা- মার্ভেল ইউনিভার্সের সর্বাধিক জনপ্রিয় মিউট্যান্ট দল এক্সমেনের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য সাইক্লপ্স তথা স্কট সামার্সের স্রষ্টা কিংবদন্তী কমিক্স কাপল স্ট্যান লি এবং জ্যাক কিরবী। ১৯৬৩ সালের...