Antman ( Hank Pym ) Super Origins সুপারহিরো অরিজিন

1

Ant Man(Henry ‘Hank’ Pym)

“No matter how smart I am, or how much I think I know, there’s only one thing I can say for certain. Hank Pym is not always right.”
-Hank Pym

মার্ভেল কমিক্সের অত্যন্ত জনপ্রিয় চরিত্র অ্যান্ট ম্যান(ওরফে জায়ান্ট ম্যান,,ওরফে গোলিয়াথ,,ওরফে
ইয়েলোজ্যাকেট,,ওরফে Father of Ultron😂😂)এর পূর্ণনাম Henry Jonathan Hank Pym..স্ট্যান লি-দা লেজেন্ড,জ্যাক কিরবি এবং ল্যারি লাইবারের সৃষ্ট অ্যান্ট ম্যানের প্রথম আবির্ভাব হয় মারভেলের “Tales To Astonish” কমিকের ২৭ নম্বর ইস্যুতে…

East Nowhere এর নেব্রাস্কায় ব্র‍্যাড পিম ও ডোরিস পিমের ঘরে জন্ম হয় মারভেল ইউনিভার্স-এর এই অসাধারণ প্রতিভার।ছোট বেলা থেকেই আর ৪/৫ টা জিনিয়াসের মত অদ্ভূত ও অসাধারণ আবিষ্কারের প্রতি পিমের ব্যাপক আগ্রহ ছিলো।কিন্তু এই আবিষ্কারের জন্য তার অনুপ্রেরণা হয়ে থাকা দাদী মারা যাওয়ার পর পিম অদ্ভূত জিনিসের বদলে গুরুত্বপূর্ণ জিনিসে আবিষ্কারের প্রতি মন দেয়।
বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত অবস্থায় পিমের এক শিক্ষক তাকে বলে যে,,পিমের কোন আবিষ্কার বৃহত্তর কল্যাণে কাজে লাগবে না।শিক্ষককে ভুল প্রমাণ করে দিয়ে সহপাঠীদের মধ্যে পিম সবার আগে বায়োকেমিস্ট্রিতে অধ্যায়ন শেষ করে ডক্টরেট অর্জন করে।(জিনিয়াস পাবলিক😲)

Marya Trovaya নামের এক সুন্দরী হ্যাংকের প্রথম স্ত্রী।বিয়ের পর স্ত্রী-এর স্বদেশ হাংগেরিতে ভ্রমণের সময় সেখানকার সিক্রেট পুলিশের নিকট Trovaya অন্যায়ভাবে নিহত হয়।স্ত্রী-এর মৃত্যুতে মর্মাহত পিম তখন থেকে সব অন্যায় ও অবিচারের বিরুদ্ধে লড়াই করার শপথ নেয়।

আমেরিকায় ফিরে এসে ল্যাবরেটরতে কাজ করার সময় পিম এক অদ্ভূত সাব-অ্যাটমিক(অতি ক্ষুদ্র কণা) আবিষ্কার করে,,যা “Pym Particles” নামে পরিচিত পায়।ম্যাগনেটিক ফিল্ডকে কাজে লাগিয়ে সে Pym Particles কে দুটো সিরামে আবদ্ধ করে।একটি সিরাম অাকৃতি ছোট,,আরেকটি সিরাম যেকোন কিছুর অাকৃতি বড় বানাতে পারতো।প্রথমে ছোট হওয়ার সিরাম গ্রহণ করে পিম পিঁপড়ার অাকৃতি ধারণ করে। পরে দ্বিতীয় সিরাম ব্যাবহার করে আগের অবস্থায় ফিরে আসে।মজার ব্যাপার হলো,,অতিক্ষুদ্র অবস্থায়ও পিম একজন স্বাভাবিক আকারের মানুষের সমান শক্তি ও ক্ষমতা রাখতো।কিন্তু সিরাম দুইটির ভয়াবহতা বুঝতে পেরে পিম দুটো সিরামই ধ্বংস করে দেয়।

কিন্তু পিঁপড়ার প্রতি কৌতুহলী হয়ে হ্যাংক পিঁপড়া গবেষণা শুরু করে😂…এখান থেকেই সে “Cybernetic Helmet” আবিষ্কার করে যেটার ইলেক্ট্রিক সিগন্যাল দিয়ে সে পিঁপড়া এবং এরকম ক্ষুদ্রজীবদের সাথে কমিউনিকেট করতে পারতো।
অ্যালিয়েনের আক্রমণে Vernon Van Dyne নামের সহকর্মীর মৃত্যু হলে,,,তার মেয়ে Janet Van Dyne এর সাথে হ্যাংকের পরিচয় হয়।একসাথে গবেষণা চালানোর সময় হ্যাংক জ্যানেটের প্রেমে পরে যায়।সমাজের সকল অন্যায় প্রতিরোধ করার জন্য হ্যাংকের আবিষ্কারকে কাজে লাগিয়ে জ্যানেট নিজস্ব স্যুট তৈরী করে।
আবির্ভাব হয় “The Ant-Man and The Wasp” এর।
Ant-Man আর Wasp অ্যাভেঞ্জারস এর অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা।

ক্রাইম ফাইটার হিসেবে অন্যায়ের বিরুদ্ধে লড়াই করার পর গবেষণায় নিয়োজিত হওয়ার জন্য হ্যাংক Avengers থেকে অবসর নেয়।কিন্তু Namor-The Sub Mariner এর নিউ-ইয়র্ক আক্রমণ থামানোর জন্য নতুন কস্টিউমে হ্যাংক পুনরায় ক্রাইম ফাইটার হিসেবে ফিরে আসে “Goliath” নাম নিয়ে.

পরে হ্যাংক রোবোটিক্স ও ন্যানো পার্টিকেল নিয়ে গবেষণা শুরু করে। হ্যাংক অত্যন্ত উন্নত কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন এক রোবট আবিষ্কার করে,,,যা “Ultron” নামে খ্যাত।আল্ট্রন পরবর্তীতে Avengers দের অন্যতম ভয়ংকর ভিলেন হিসেবে দেখা দেয়।

আল্ট্রনের সৃষ্টি ও জ্যানেটের সাথে সম্পর্কের টানপোড়নের হতাশা নিয়ে ল্যাবে কাজ করার সময় হ্যাংকের হাত থেকে অজানা গ্যাস ভরা একটি সিলিন্ডার পরে ভেঙে যায়।এই গ্যাসের প্রভাবে হ্যাংকের চরিত্রে অন্যরকম পরিবর্তন আসে।নিজেকে আগের হ্যাংকের হত্যাকারী হিসেবে পরিচয় দিয়ে সম্পূর্ণ বিপরীত চরিত্রের ক্রাইম ফাইটার হিসেবে Anti-hero “Yellowjacket” এর আবির্ভাব হয়।Yellowjacket পিম নিজেই জ্যানেটকে কিডন্যাপ করে বিয়ের প্রস্তাব দেয়।কিন্তু হ্যাংকের আসল পরিচয় জানতে পারায় জ্যানেট প্রস্তাবে রাজি হয়ে যায়।Avengers Mansion এ তাদের শাদী মোবারক সম্পন্ন হয়😆😆✌.
Yellowjacket থাকা অবস্থায় হ্যাংক পুরোনো শত্রু “Egghead” এবং কুখ্যাত “Serpent Society”সহ Avengers এর আরো অনেক শত্রুর মোকাবেলা করে।

কিন্তু তারপরেও আল্ট্রনের সৃষ্টি ও নিজের সুনামের জন্য জ্যানেটের সবচেয়ে বড় ভূমিকা থাকায় “Scientist supreme” নিজেই নিজেকে অযোগ্য বিজ্ঞানী মনে করতে শুরু করে।জ্যানেটের প্রতি হ্যাংকের বিদ্বেষী মনোভাব তাদের ডিভোর্স এর মাধ্যমে শেষ হয়।পরবর্তীতে Elfqueen এর সাথে Avengers এর battle এ হ্যাংকের আগ্রাসী মনোভাবের জন্য তাকে Avengers থেকে বহিষ্কৃত করা হয়।

Master off Evil নামের একদল সুপারভিলেনের সাথে battle এর পর হ্যাংক “West coast Avengers” এর রক্ষক ও পর্যবেক্ষক হিসেবে নিযুক্ত হয়।

Team affliction:

Avengers
West coast Avengers
Uncanny Avengers
Mighty Avengers
Avengers Academy
Avengers A.I
Secret Avengers
Secret Defenders
Illuminati
Defenders

Trivias:-

-অ্যান্ট ম্যান হিসেবে থাকার সময় পিঁপড়াদের সাথে হ্যাংকের মানবিক আবেগের সম্পর্ক তৈরী হয়েছিলো।

– আল্ট্রন তৈরী করার সময় হ্যাংক আল্ট্রনের রোবটিক কপোট্রনে নিজের ব্রেইন প্যাটার্ন কপি করে…এজন্য আল্ট্রনকে মূলত Hank Pym এর Evil Counterpart বলা যেতে পারে।

– Wasp কস্টিউমটা প্রথম স্কারলেট উইচ ডিজাইনিং করেছিলো😍

–আয়রন ম্যানের বিখ্যাত “Phoenix-killer armour” তৈরীতে হ্যাংকের ভূমিকা ছিলো।

-রিড রিচার্ডসের পর হ্যাংক পিম মারভেল ইউনিভার্স এর সবচেয়ে বুদ্ধিমান ব্যাক্তিদের একজন।বিজ্ঞানের প্রতি প্রবল অনুরাগের জন্য হ্যাংক “scientist supreme” নামেও খ্যাত।

-Rage of Ultron স্টোরিলাইনে আল্ট্রনের সাথে Merge করে হ্যাংক নতুন Cyborg এ পরিণত হয়।পরে আল্ট্রনের আক্রোশ থেকে বাঁচাতে হ্যাংক নিজেকে sacrifice করে।
– ধন্যবাদ।

[review]

Antman ( Hank Pym ) Super Origins সুপারহিরো অরিজিনTankiBazzসুপারহিরো অরিজিনAntman,Super Origins,সুপারহিরো অরিজিন
Antman ( Hank Pym ) Super Origins সুপারহিরো অরিজিন Ant Man(Henry 'Hank' Pym) 'No matter how smart I am, or how much I think I know, there's only one thing I can say for certain. Hank Pym is not always right.' -Hank Pym মার্ভেল কমিক্সের অত্যন্ত জনপ্রিয় চরিত্র অ্যান্ট ম্যান(ওরফে জায়ান্ট ম্যান,,ওরফে গোলিয়াথ,,ওরফে ইয়েলোজ্যাকেট,,ওরফে...