কমিক্সে ফেনরিস হলো সকল উল্ফদের রাজা, দেবতা বলা চলে। মার্ভেল কমিক্সের থর স্টোরিলাইনে এই ফেনরিস কে বহুবার দেখা গিয়েছে। মার্ভেল কমিক্সে ফেনরিস কে সর্বপ্রথম দেখা যায় 1965 সালের “জার্নি ইনটু মিস্ট্রি” নামক কমিক্স সিরিজে। কাল্পনিক এই নেকড়েটি সৃষ্টি করেছেন স্ট্যান লী এবং জনপ্রিয় আর্টিস্ট জ্যাক কার্বি।

Origin of Fenris Wolf

Fenris Wolf অরিজিন: থর র‍্যাগনেরক মুভির দানবীয় নেকড়ে

ফেনরিস উল্ফ হচ্ছে নর্স মিথোলজির দানবীয় নেকড়ে এবং ফেনরির উপর ভিত্তি করে তার আগমন হয়। মার্ভেল সিনেমাটিক ইউনিভার্সে ফেনরিস (Fenris) উল্ফের দেখা মিলেছে থর র‍্যাগনেরক মুভিতে। কিন্তু কমিক্সর ফেনরিস মোটেও বোকা নয় বরং তীক্ষ্ণ বুদ্ধিসম্পন্ন, চতুর এবং মারাত্মক শক্তিশালী একজন নেকড়ে। ফেনরিস উল্ফ কে লোকির সন্তান বলা হয়ে থাকে এবং অ্যাঙ্গরবোডা নামের নারী দানবীর সন্তান হিসেবে পরিচিত। এছাড়া ফেনরিস উল্ফ মিডগার্ড সার্পেন্টের সম্পর্কে ভাই হয়।

অনেক বছর আগে ফেনরিস উল্ফ “লিটেল রেড রাইডিং হুড” অংশের অন্তর্ভূক্ত ছিল। ইডুনা নামের এক দেবী অ্যাসগার্ডের বনে হাটতে যায় এবং হাটতে যাওয়ার সময় কিছু সোনালী রঙের আপেল বহন করে। ইডুনা সবসময় সব জায়গায় আপেলগুলা নিয়ে যেত। আপেলগুলা আসলে অল ফাদার ওডিনের নীতি ও পাপাচারের জিনিসগুলার বিষয় হিসাবে তা মুক্ত করতে ব্যবহার করা হতো। ইডুনা পরবর্তীতে এক অস্থায়ী স্ট্রেঞ্জারের কাছে লম্বা এক ভ্রমণের মাধ্যমে তার কাছে যায়। স্ট্রেঞ্জারটা ইডুনাকে ভ্রমণের জন্য বরাবরই তাকে সুরক্ষা দেওয়ার প্রস্তাব দেয়। কিন্তু ইডুনা তার প্রস্তাবটি মেনে নিতে নারাজ হয়। সেই স্ট্রেঞ্জারটি ইডুনার থেকে একটা শক্ত অভিজ্ঞতা পাওয়ার জন্য ইডুনার আপেলের ঝুড়িটা নেওয়ার চেষ্টা করে এবং সেগুলাকে নিয়ে সে ইডুনাকে নানারকম প্রশ্ন করতে শুরু করে। ইডুনা খুব শীঘ্রই তার উপর সন্দেহপ্রবণ হয়ে যায়। এতে ইডুনা তার হাতকে নিষ্ঠুর ও লোভী হিসাবে ব্যক্ত করে। কিন্তু হঠাৎ সেই স্ট্রেঞ্জারের গলার কন্ঠস্বর অনেকটা পশুদের মত হয়ে যায়। ইডুনা সেই স্ট্রেঞ্জারের মধ্যে অশুভ ও ভয়ানক স্বভাব দেখতে পায় এবং ইডুনা তার চোখকে ঘৃণা ও খাটি অসভ্য হিসাবে অভিশপ্ত উন্মোচন করে। পরে ইডুনা বুঝতে পারল যে, স্ট্রেঞ্জারটা আসলে নেকড়ে বাঘের দেবতা ছিল যা সে এতক্ষণ মানুষরুপে ছদ্মবেশী ছিল। সে আর কেউ নয়, সেই ছদ্মবেশী স্ট্রেঞ্জারটাই ফেনরিস ছিল। তাই সে তখন ইডুনার সামনে ফেনরিসের আসল নেকড়ের রুপ ধারণ করে এবং করার পর ইডুনার উপর আক্রমণাত্বক চেষ্টা চালায়। এরপর হাকুন নামক শিকারী তার একটা কুড়াল ফেনরিসকে অনুসরণ করে আঘাত করে। এরপর তাকে ভেনাহাম স্থানে বন্দি করে রাখা হয়। ফেনরিস উল্ফ যেহেতু বিশাল আকৃতির দানবে রুপান্তরিত হতো এবং প্রচন্ড শক্তিশালী হয়ে যেত, তাই অ্যাসগার্ডিয়ানরা তাকে কারাগার থেকে ছেড়ে দেওয়াটা খুব বিপদজনক হবে বলে তাকে বন্দি করে রাখে। অবশেষে ফেনরিসের সাথে অ্যাসগার্ডিয়ানরা একটা খেলা শুরু করে যেই খেলাটা ছিল, তারা যখন ফেনরিসের মুখের উপর প্রতিদিন কিছু শক্ত জিনিস দিয়ে বন্ধ করে রেখে দিয়ে যায়, যতক্ষণ না পর্যন্ত সে মুখের উপর বন্ধনগুলো টেনে খুলতে না পারবে, ততক্ষণ সে ওই ভেনাহামেই বন্দি অবস্থায় থাকতে হবে। তারা সবসময় ফেনরিসকে সেই জিনিসটি দিয়ে মুখ বন্ধ করে দিত, কিন্তু একদিন হঠাৎ সে সহজেই এটা ভেঙ্গে মুখ খুলতে সফল হয়। ঠিক সেসময় অ্যাসগার্ডের রাজা ওডিন তখন ডোয়ার্ফ ইট্রি এর সাথে কথাবার্তা বলে একজোট হয়ে একটি জাদুকরী গপ্লনির তৈরী করে। এই জাদুকরী গপ্লনিরটি ফেনরিস উল্ফের জন্য তৈরী করা হয়, যেটা দিয়ে অ্যাসগার্ডিয়ানরা চেয়েছিল ফেনরিসের ঘাড়ে রাখতে। কিন্তু ফেনরিস বুঝে যায় তার সাথে ভুল কিছু হতে যাচ্ছে, তাই সে তাদেরকে বোকা বানিয়ে বিশ্বাস স্থাপন করিয়ে ফেনরিস নিজের মুখে তাদের হাত দিয়ে সেই জাদুকর গপ্লনির বস্তুটি রাখতে বলে। এটি ছিল বিন্দুমাত্র সহজভাবে বন্ধ করার বস্তু যদিও সেটা ভাঙ্গা সত্যিই খুব মুশকিল ছিল। ওইসময় “টাইর” নামের এক অ্যাসগার্ডিয়ান বিশ্বস্ত হয়ে ফেনরিসের মুখের উপর হাত রাখতে গিয়ে বেচারা টাইরের একহাত পুরো বাহু ঠিক তখনই শয়তান নেকড়ে ফেনরিস খেয়ে ফেলে। এইরকম অভাঙ্গনীয় বস্তু ফেনরিসের উপর না রাখতে পারায় ফেনরিস তাদেরকে ঠকিয়ে ঘাড়ে না রেখে মুখে রাখতে বলেছিল, যেন টাইরের হাত একটা সে খেয়ে ফেলতে পারে। এরপর এরূপ ফলাফল সৃষ্টি হওয়ার কারণে ফেনরিসকে তখন যোদ্ধারা সবাই মিলে একটি জিওল পাথরের নরকের দরজা দিয়ে তাকে আবদ্ধ করে এবং পরে ফেনরিস বন্দী হয়ে যায়। পরবর্তীতে কোনো একসময় মৃত্যুর দেবী হেলা এর আগমন হয়, যেখানে ফেনরিসকে বন্দি করা হয়েছিল। হেলা ঠিক সেসময় ফেনরিসের কাছে গিয়ে তাকে বন্দিদশা থেকে মুক্ত করে দেয়, তারপর হেলা আর ফেনরিস একজোট হয়ে থর কে থামানোর জন্য রেগনেরক ভয়াবহ যুদ্ধ সংগঠিত করে। তখন ফেনরিস উল্ফ ভেনাহামের উপর আক্রমণ হামলা চালিয়ে যাচ্ছিল। এই সময় হঠাৎ ফেনরিস পূর্বের তুলনায় বিশাল আকৃতি ও প্রচন্ড শক্তিশালী নেকড়েতে পরিণত হয়, যখন সে থরের সাথে যুদ্ধ করতে যায়। সেখানে থর ফেনরিসকে কিছু ভাঙ্গা যায় না এমন চেইন দ্বারা বদ্ধ করে ফেলে। কিছুক্ষণ পর ফেনরিস সেই অভাঙ্গনীয় শক্তিশালী চেইনটি অলৌকিকভাবে ভেঙ্গে ফেলে, তখন থর তার বিরুদ্ধে জড়িয়ে পড়ে এবং বিভিন্ন সময়ে ধরে বাজি ধরে। কিন্তু সে সময় হঠাৎ বেটা রে বিল ফেনরিসের উপর তার বজ্রশক্তি দিয়ে আক্রমণ করে, তারপর তার স্টর্মব্রেকার দিয়ে সম্পূর্ণ শক্তি প্রয়োগ করে ফেনরিস উল্ফকে কঙ্কাল করে দেয়। বেটা রে বিল তখন ফেনরিসকে থামাতে সফল হয়.

◼.ফেনরিসের বর্বরতার কারনে তাকে বহু বছর অ্যাসগার্ডে বন্দি করে রাখা হয়, কিন্তু বিভিন্ন সময় লোকি, হেলা এরা অ্যাসগার্ড দখল করার জন্য ফেনরিসকে মুক্ত করে তার সাথে জুটি বেধে শত্রুপক্ষদের আক্রমণ করে। কমিক্সে ফেনরিস অনেক শক্তিশালী একজন ক্যারেক্টার, তাকে একবার সার্টারের অগ্নি তলোয়ার হাতে অ্যাসগার্ড ধ্বংস করতে দেখা গিয়েছিলো। কিন্তু ভাগ্যক্রমে অ্যাভেঞ্জারসরা অ্যাসগার্ডে উপস্থিত থাকায় সবাই মিলে ফেনরিস কে বন্দী করতে সফল হয়। একবার ফেনরিস থরকে প্রায় মেরেই ফেলেছিলো, কিন্তু বেটা রে বিল এসে থরকে বাচিয়ে দেয়। এছাড়া ফেনরিস কে অনেক সময় থরের হ্যামার গুলো দিয়ে থরের উপর পাল্টা আক্রমণ করতে দেখা গিয়েছে। এতেই বুঝা যায়, ফেনরিস কতটা ভয়ঙ্কর।

◼.অ্যাসগার্ডের অন্যতম শক্তিশালী সদস্য হলো এই ফেনরিস উল্ফ। ফেনরিস অনেকসময় ভেনাহমের যুদ্ধে থরদের বিপক্ষে লড়াই করেছিল। ফেনরিস উল্ফের পূর্বপূরুষ ছিলেন এক অ্যাসগার্ডিয়ান হির্মহেরী নামের দেবতা। যখন কার্স নামের শয়তান তার নিজের সন্তানদের রক্ষার ব্যবস্থা করে, তখন ফেনরিস কার্সের সাথে যুদ্ধ করে এবং তাকে মেরে ফেলে। যখন রেগনেরক শুরু হয়, তখন ফেনরিস সেই ভাববাণীতে ওডিনকে হত্যা করে। পরবর্তীতে ফেনরিস উল্ফ তার নিজের জীবনে ফিরে যায় এবং কবলিত অ্যাসগার্ডকে নিগীর্ণ করে দেয়। ফেনরিস রেগনেরকের উদ্দেশ্যে চাদকে অনুসরণ করে এবং অ্যাসগার্ডকে অন্ধকারে ধাবিত করে দেয়, যার কারণে বহুসংখ্যাক অ্যাসগার্ডিয়ান প্রাণ হারায়.

◼শক্তি ও ক্ষমতা◼

◼.ফেনরিসের অনেক রকম পাওয়ার আছে, যেমন, তার সবচেয়ে বড় শক্তি হলো রুপ বদল করা, সে যে কারো বেশ ধরতে পারে, সে ইচ্ছাধারী নেকড়ে। এছাড়া অতিমানবিক ক্ষমতা, অতি শক্তিমত্তা, অতি দ্রুততা, আরোগ্যলাভ তো আছেই। তার সবচেয়ে শক্তিশালী ক্ষমতা হলো, সে যাকে একবার খেয়ে ফেলে, সে তার সকল প্রকার শক্তি হাসিল করে ফেলে, এবং পুর্বের থেকে আরো বেশী শক্তিশালী ভয়ংকর হয়ে উঠে। ফেনরিস উল্ফ তখনই তার আসল শক্তি পায়, যখন থরের সাথে যুদ্ধ করেছিল, যা ফেনরিসের শক্তির পরিসর সীমা 100 উচ্চতর পর্যায়ের মধ্যে হয়। ফেনরিসের দাঁতগুলো খুব ধারালো বিষাক্ত এবং পায়ের নখগুলো খুব ধারালো.

অরিজিন লিখেছেনঃ Rafiul Alam ও Rafi Bhuiyan

থর র‍্যাগনেরক মুভির দানবীয় নেকড়ে Fenris Wolf অরিজিনTankiBazzসুপারভিলেন অরিজিনOrigin of Fenris Wolf
কমিক্সে ফেনরিস হলো সকল উল্ফদের রাজা, দেবতা বলা চলে। মার্ভেল কমিক্সের থর স্টোরিলাইনে এই ফেনরিস কে বহুবার দেখা গিয়েছে। মার্ভেল কমিক্সে ফেনরিস কে সর্বপ্রথম দেখা যায় 1965 সালের 'জার্নি ইনটু মিস্ট্রি' নামক কমিক্স সিরিজে। কাল্পনিক এই নেকড়েটি সৃষ্টি করেছেন স্ট্যান লী এবং জনপ্রিয় আর্টিস্ট জ্যাক কার্বি। Fenris Wolf অরিজিন: থর...